মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ অক্টোবর ২০২০

ওজোপাডিকো’র উদ্যেগে মুজিববর্ষেই মনপুরা দ্বীপে শতভাগ বিদ্যুতায়নের সাইট পরিদর্শন


প্রকাশন তারিখ : 2020-10-09

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি, বাঙ্গালী জাতির অবিসংবাদিত নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ, এই স্লোগানকে সামনে রেখে ওজোপাডিকো মনপুরা দ্বীপের মূল ভূমীতে ০৩(তিন) মেগাওয়াট সোলার হাইব্রিড বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মাধ্যমে মুজিব বর্ষেই শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্যেগ গ্রহণ করেছে। তারই অংশ হিসাবে অদ্য ০৯.১০.২০২০তারিখ রোজ শুক্রবার সকাল ১১:০০ ঘটিকায় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. সুলতান আহমেদ (ওজোপাডিকো)’র প্রস্তাবিত হাইব্রিড বিদ্যুৎকেন্দ্রের সাইট পরিদর্শন করেন। অনুষ্ঠানে মাননীয় সচিব ড. সুলতান আহমেদ বলেন যে, মনপুরা একটি সম্ভাবনাময় ও সব থেকে জাতীয় গ্রীড হতে দূরবর্তী দ্বীপ হওয়ায় এখানকার জনগণ বিদ্যুতের পূর্ণসুবিধা থেকে বঞ্চিত। বর্তমানে ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি ভর্তুকি দিয়ে জেনারেটরের মাধ্যমে মনপুরাবাসীকে দৈনিক ৮ঘন্টা বিদ্যুৎ সুবিধা দিয়ে আসছে। এজন্য ওজোপাডিকো’র কর্তৃপক্ষকে তিনি ধন্যবাদ জানান। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শতভাগ বিদ্যুতায়নের লক্ষ্যকে সামনেরেখে মনপুরাদ্বীপে নবায়নযোগ্যজালানির মাধ্যমে ওজোপাডিকো কর্তৃক হাইব্রিড বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হচ্ছে। উক্ত বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হলে সম্পূর্ণ অবিদ্যুতায়িত ৫০০০ গ্রাহকসহ মনপুরায় প্রায় ১৮০০০ গ্রাহক ২৪ ঘন্টা নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করতে পারবে এতে মনপুরাবাসী শতভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় আসবে। ফলে এ অঞ্চলের জনগণের জীবন মান উন্নত হবে।

 

অনুষ্ঠানে ওজোপাডিকো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন বলেন যে, মনপুরা দ্বীপ হতে জাতীয়গ্রীডের দূরত্ব প্রায় ৯৫কি:মি: তন্মেধ্যে পানিপথের দূরত্বপ্রায় ১৮কি:মি:। পানিপথে সাবমেরিনক্যাবল স্থাপনের Anchoring সহ Details Feasibility Studyএর প্রয়োজন যা বাস্তবায়ন সময়সাপেক্ষ। বিদ্যমান নেটওয়ার্কের ওভারলোড, ভোল্টেজড্রপ ও লাইনের দূরত্ব বিবেচনায় বর্তমান ৩৩কেভি লাইনের মাধ্যমে কোয়ালিটি বিদ্যুৎ সরবরাহ সম্ভব হবেনা, বিধায় মুজিব বর্ষে এ অঞ্চলে কোয়ালিটি বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য ওজোপাডিকো ০৩(তিন) মেঃওঃ (AC) সোলার হাইব্রিড বিদ্যুৎপ্রকল্পটি গ্রহণ করেছে। উক্ত বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি স্থাপন হলে বর্তমান ওজোপাডিকো’র বিদ্যুৎউৎপাদন ও পরিচালন ব্যয় সাশ্রয় হবে এবং ০৮ঘন্টার স্থলে সকল গ্রাহকগণ ২৪ঘন্টা নিরবচ্ছিন্ন  বিদ্যুৎ সুবিধা পাবেন যা মনপুরাদ্বীপে বিদ্যুতায়নের টেকসই সমাধান হবে। ভবিষ্যতে চরফ্যাশনে গ্রীড উপকেন্দ্র স্থাপিত হলে মনপুরা দ্বীপে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে জাতীয় গ্রীডের বিদ্যুৎ সুবিধা প্রদান করা হবে। সে মোতাবেক বর্তমান সোলার হাইব্রিড প্রকল্পটি ডিজাইন করা হয়েছে যা ভবিষ্যতে জাতীয় গ্রীডের সাথে ইন্টিগ্রেশন হতে পারবে।

 

অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, স্রেডার চেয়ারম্যান ও বিজ্বাখস মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ আলাউদ্দিন, মনপুরা উপজেলার উপজেলা চেয়্যারম্যানসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধীগণ।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সেলিম মিয়া। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব মোহাম্মদ নাজমুল আবেদীন, তাহমিনা ইয়াসমিন, নিরোদ চন্দ্র মন্ডল, মাহফুজা আখতার, UNDP এর কান্ট্রি ডিরেক্টর মোঃ তাইবুর রহমানসহ বাংলাদেশ বিদ্যুতায়ন বোর্ডের প্রধান প্রকৌশলী মোঃ মাহবুবুর রহমান। 


Share with :

Facebook Facebook