মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৩ নভেম্বর ২০১৯

বৈদ্যুতিক কর্মপেশায় দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির আওতায় “কঞ্জুমার ইলেকট্রিশিয়ান ট্রেড কোর্স” প্রশিক্ষণ কোর্সের ১ম ব্যাচ এর সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত।


প্রকাশন তারিখ : 2019-11-12

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি বিষয়ক মূখ্য সমন্বয়ক জনাব আবুল কালাম আজাদ মহোদয়ের সদয় নির্দেশনা মোতাবেক বৈদ্যুতিক কর্মপেশায় দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ কোর্স এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবাষির্কী “মুজিব বর্ষ” উপলক্ষ্যে দেশকে দক্ষ জনশক্তি উপহার দেয়ার প্রতিশ্রুতিতে গত ০৫/০৯/২০১৯ ইং হতে ০৬/১১/২০১৯ ইং পর্যন্ত  “কঞ্জুমার ইলেকট্রিশিয়ান ট্রেড কোর্স” প্রশিক্ষণ কোর্সটি ১ম ব্যাচের সফল সমাপ্তি ওজোপাডিকো ট্রেনিং সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।  বৈদ্যুতিক কর্মপেশায় দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে পঞ্চবার্ষিকী (মুজিব বর্ষ ও পরবর্তী ৪ বছরে) প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। বিদ্যুৎ বিভাগের নির্দেশনা মোতাবেক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ১৭ মার্চ/২০২০ থেকে ১৭ মার্চ/২০২১ “মুজিব বর্ষ” হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছে। “মুজিব বর্ষ” উদযাপনের জন্য সেপ্টেম্বর/২০১৯ হতে মার্চ/২০২১ সাল পর্যন্ত মোট ৭ টি এবং পরবর্তী ৪ বছরে মোট ২০ (বিষ) টি  অথাৎ সর্বমোট ৫ বছরে ২৭ (সাতাশ) টি প্রশিক্ষণ কোর্স ২ মাস ব্যপি  চলমান থাকবে। প্রতি প্রশিক্ষণ কোর্সে ৩০ (ত্রিশ) জন প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করার মাধ্যমে মুজিব বর্ষে ২১০ (দুইশত দশ) জন প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। এরূপ পরবর্তী ৪ (চার) বছরে মোট ৬০০ (ছয়শত) জন প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। মুজিব বর্ষ ও পরবর্তী ৪ বছর বাংলাদেশে মোট ৫ বছরে মোট ৮১০ জন প্রশিক্ষণার্থীকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। তারই ধারাবাহিকতায় আজ প্রথম ব্যাচের আনুষ্ঠানিক সফল সমাপ্তি হয়েছে । “কঞ্জুমার ইলেকট্রিশিয়ান ট্রেড কোর্স” কোর্সটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হচ্ছে এটি সম্পূর্ন বিনামূল্যে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়ে থাকে। সমাজের স্বল্প-শিক্ষিত পিছিয়ে পড়া জেলা, উপজেলার বেকার তরুনদেরকে দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে তোলা এই প্রশিক্ষণের প্রধান লক্ষ্য।

 

ওজোপাডিকো ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, ওজোপাডিকোলিঃ, খুলনা দপ্তরের কনফারেন্স রুমে “কঞ্জুমার ইলেকট্রিশিয়ান ট্রেড কোর্স” ব্যাচ-১ এর সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সমাপনী অনুষ্ঠিানের প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন, ব্যবস্থপনা পরিচালক ওজোপাডিকোলিঃ, খুলনা তিনি তার বক্তব্যে বলনে য,ে বর্তমান সরকার ২০০৯ সালে শ্লোগান দেন, “শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ” ও সাম্প্রতিক “গ্রাম হবে শহর” এই শ্লোগানকে বাস্তবে রূপ দেওয়ার জন্য বর্তমান সরকারের এসডিজি বিষয়ক সমন্বয়ক জনাব আবুল কালাম আজাদ দক্ষ জনশক্তি রুপান্তরের লক্ষ্যে এই ট্রেড কোর্সের গুরুত্ব আরোপ করেন। প্রধান অতিথিি আরোও বলেন যে, বর্তমানে গ্রাম গঞ্জে ইলেকট্রনিক ডিভাইস অর্থাৎ টিভি, ফ্রিজ, রাইচ কুকার ও এসি পৌছে গেছে। এগুলো রক্ষনাবেক্ষনের জন্য “কঞ্জুমার ইলকেট্রশিয়িান ট্রেড কোর্স” এর গুরুত্ব অপরিসীম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মিশন ও ভিশন ২০২১ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রুপান্তরের জন্য দক্ষ জনশক্তির তৈরীর কোন বিকল্প নেই। 

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, জেলা প্রশাসক, খুলনা তিনি তার বক্তব্যে বলেন যে, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার আগে বাংলাদেশের বিদ্যুতের উৎপাদন ছিল ৩৫০০ মেগাওয়াট। বর্তমান বিদ্যুৎ উৎপাদন দাড়িয়েছে ৩০০০০ মেগাওয়াট। এই উন্নয়ণকে আরও ত্বরান্বিত করার জন্য দক্ষ জনশক্তি তৈরী করা কোন বিকল্প নেই। আর এই লক্ষ্যকে সামনে রেখে ওজোপাডিকো ট্রেনিং ইনস্টিটিউট যে প্রশিক্ষনের আয়োজন করেছে তার জন্য তিনি ওজোপাডিকো কর্র্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ ঞ্জাপন ও ভূয়শি প্রসংশা করেন। 

 

 

উক্ত অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন খুলনা প্রেস ক্লাবের সন্মানিত সাধারণ সম্পাদক জনাব শাহেব আলী,  ওজোপাডিকো’র প্রধান প্রকৌশলী জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, জনাব আবদুল মোতালেব (কোম্পানি সচিব), জনাব মোহাম্মদ নাজমুল হুদা, ব্যবস্থাপক (প্রশাসন), মোঃ মোশাররফ হোসেন, নির্বাহী প্রকৌশলী (সিস্টেম এনালিস্ট) ও প্রকৌশলী মোঃ খোসরুল ইসলাম । উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রকৌশলী মোছাঃ শাহীন আখতার পারভীন, নির্বাহী প্রকৌশলী, ওজোপাডিকো টেনিং ইনস্টিটিউট, ওজোপাডিকোলি, খুলনা।  উক্ত প্রশিক্ষণে প্রথম স্থান অধিকার করার গৌরব অর্জন করেন জনাব ওবায়দুল ইসলাম, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন জনাব মোঃ মহিদুল ইসলাম এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেন জনাব আরিফ হোসেন। প্রধান অতিথি এবং বিশেষ অতিথি মহোদয় অনুষ্ঠান শেষে প্রশিক্ষণার্থীরা যাতে কর্মপেশায় সরাসরি যুক্ত হতে পারে সেলক্ষ্যে  প্রশিক্ষনার্থীদের একটি করে ইলেকট্রিক টুলস্ বক্স এবং সার্টিফিকেট প্রদান করেন ।

 


Share with :

Facebook Facebook